যদি তুমি বলো

যদি তুমি বলো


যদি তুমি বলো রুপালী চাঁদ এনে দিতে ,
আমি পারবোনা তা কখনো এনে দিতে....
যদি বলো বিশ্ব সংসার তন্য তন্য করে -
১০৮ টা নীল পদ্ম এনে দিতে ,
সত‌্য বলছি আমি তোমাকে তাও এনে দিতে পারবোনা....
দু হাত পেতে যদি কখনো সমুদ্রের নোনা জল খুঁজো ,
আমি সমুদ্র তো দেখেছি বহু বার,কখনো ছুয়ে দেখিনি তার জল
আমি কি করে এনে দেবো সেই নোনা জল তোমার হাতে তুলে ?
আমি পারবোনা তোমাকে কখনো দিতে এক মুঠো সুখ
আমার এই বেদনা শিক্ত জীবন থেকে......তবে,
আমি সামান্য কিছু দিতে পারি তোমায়,স্বার্থ হীন ভাবে,
আমি দিতে পারি তোমায় হাজাড়ও রাত্রি জাগা -
তেলের প্রদ্বীপ হতে কিছুটা কাজল তুলে....
তোমার অপরুপ চোখের কার্নিশে রাখবে বলে.....
আমি তোমার চরন দুটি রাঙাতে পারি ,
ভোরের শিশির ভেঁজা শিউলি ফুলে ফুলে....
আমি শ্রাবন দিনের প্রথম কদম হাতে তোমার তরে,
অপেক্ষা করতে পারি শ্রাবন জলে ভিঁজে ভিঁজে.....
যদি কখনো কোনো ভুলে,তোমার চোখের কোনে-
জল চলে আসে বেদনার ছলে,
মিথ্যে স্বান্তনা দেবো ,একথা ভেবোনা কভু.....
স্বার্থহীন ভাবে আমিও ঝড়াতে পারি দু ফোঁটা জল-
তোমার বেদনায় সমোবেথীত হয়ে........






নির্জন আহমেদ অরণ্য

Penulis : নির্জন আহমেদ অরণ্য ~ Sebuah blog yang menyediakan berbagai macam informasi

Artikel যদি তুমি বলো ini dipublish oleh নির্জন আহমেদ অরণ্য pada hari Wednesday, 3 November 2010. Semoga artikel ini dapat bermanfaat.Terimakasih atas kunjungan Anda silahkan tinggalkan komentar.sudah ada 0 komentar: di postingan যদি তুমি বলো
 

0 comments:

Post a Comment